সাম্প্রতিক সংবাদ

নীলফামারী ডোমারে গৃহকর্মীর মৃত্যু নিয়ে রহস্য

nilphamari

বিডি নীয়ালা নিউজ(০২ফেব্রুয়ারি১৬)- আসাদুজ্জামান সুজন (নীলফামারী প্রতিনিধি): নীলফামারীর ডোমারে শিলা আক্তার (১৩) নামে এক গৃহকর্মীর মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। কেউ বিষয়টিকে আত্মহত্যা বল্লেও কেউ বলছেন মেয়েটি এমনিতেই অসুস্থাবস্থায় মারা গেছে। পরে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। সোমবার বিকালে উপজেলার পশ্চিম চিকনমাটি পল্টন পাড়ায় এই ঘটনাটি ঘটে। মেয়েটি ওই এলাকার বাসিন্দা আব্দুল কালামের বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করতো।
শিলা আক্তার একই এলাকার কবিরাজ আব্দুল হকের মেয়ে। সে ডোমার দাঘিল মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ছিল।
আব্দুল কালাম বলেন, ‘আমরা স্বামী-স্ত্রী চাকরি করি। সোমবার গৃহকর্মী শিলাকে বাসায় রেখে আমরা অফিসে যাই। বিকালে আমার ভাবীর ফোন পেয়ে জানতে পারি সে মারা গেছে। তার কোনও রোগ ছিল কিনা সেটা আমরা জানিনা। তবে তার মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় গুজব ছড়িয়ে যায়, সে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পরে বিষয়টি থানা পর্যন্ত গড়ায়।’
সন্ধায় ডোমার থানার এসআই  খাদিমুল ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহ দেখে সন্দেহ হওয়ায় লাশ থানায় নিয়ে আসেন। মঙ্গলবার সকালে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।
এদিকে এলাকাবাসী জানায়, পশ্চিম চিকনমাটি পল্টনপাড়া গ্রামের মৃত মোছলেম উদ্দিনের ছেলে দেবীগঞ্জ মহিলা ডিগ্রি কলজের প্রভাষক আবুল কালাম আজাদের বাড়িতে গত ছয় বছর ধরে কাজ করতো শিলা। বর্তমানে ডোমার দাখিল মাদ্রাসায় সে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে পড়তো। সোমবার তাকে বাড়িতে রেখে কালাম কলেজে ও তার স্ত্রী নার্গিস স্কুলে যায় বাচ্চাদের নিয়ে। পরে ফোনে জানতে পেরে বাড়িতে এসে দেখে মেয়েটি মারা গেছে। প্রতিবেশীরা তাকে স্থানীয় ডক্টর্স ক্লিনিকে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মাসুম মেয়েটিকে মৃত ঘোষণা করে।
ডোমার থানার এসআই ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মো.খাদেমুল ইসলাম জানান,খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করি। সকালে তার লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় সোমবার রাতে একটি মামলা হয়েছে।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

shared on wplocker.com