সাম্প্রতিক সংবাদ

নীলফামারীতে ‘পরিবর্তন চাই’ এর দেশটাকে পরিস্কার করি দিবস পালিত

2016-02-06 17.32.29

বিডি নীয়ালা নিউজ(০৬ফেব্রুয়ারি ১৬)- আসাদুজ্জামান সুজন (নীলফামারী প্রতিনিধি): “আমি শপথ করছি যে,সর্বদা কেবল ডাস্টবিনে ময়লা ফেলব এবং অন্যদেরও ফেলতে বলব। চলার পথে ময়লা ফেলার প্রয়োজন হলেও সেগুলো সাথে নিয়ে নিজ দায়িত্বে কেবলমাত্র ডাস্টবিনে ফেলব।উন্মুক্ত স্থান,বনাঞ্চল,জলাশয়ের পরিবেশ বিনষ্ট হয়,এমন কাজ কখনো করব না।আমি নিজের কাছে প্রতিজ্ঞা করছি যে আমি পরিচ্ছন্ন ও সুন্দর বাংলাদেশে গড়তে সদা সচেষ্ট থাকব।আমিন।” সারা দেশের প্রায় এক লক্ষ স্বেচ্ছাসেবক আজ এ শপথ নিয়েছেন। তারা পরিবর্তন চাই নামক সামাজিক সংগঠনের আহবানে দেশটাকে পরিস্কার করি দিবস ২০১৬ পালন করেছেন।

আজ ৬ ফেব্রুয়ারি সারাদেশের ৬৪ জেলায় এক বা একাধিক স্থানে দিবসটি উপলক্ষে বিশেষ পরিচ্ছন্নতা এবং সচেতনতা তৈরির অভিযান পালিত হয়েছে।সারাদেশে এ অভিযান গুলোতে প্রায় এক লক্ষ সেচ্ছাসেবক অংশগ্রহণ করেছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। এটি অংশগ্রহণকারী সেচ্ছাসেবক এর সংখ্যার দিক দিয়ে বাংলাদেশের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় অভিযানের রেকর্ড গড়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

সারাদেশের ন্যায় নীলফামারীতেও অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এ উপলক্ষে আজ শনিবার সকাল ১১ টায়  “পরিবর্তনন চাই-নীলফামারী” এর সভাপতি নাসির উদ্দিন এর নেতৃত্বে সৈয়দপুর মহিলা মহাবিদ্যালয় থেকে একটি  বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের করা হয়।এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু ছালেহ মো: মুসা জঙ্গী,বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন অধ্যক্ষ ক্ষিতীশ চন্দ্র রায়। এছাড়াও র‌্যালীতে নীলফামারী পরিবর্তন চাই এর সদস্যরা, শিক্ষক ও কলেজের অর্ধশত ছাত্রী অংশগ্রহণ করে।

র‌্যালীটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে বিভিন্ন পয়েন্টে থেমে রাস্তায় ময়লা-আবর্জনা তুলে ডাস্টবিন এ ফেলে মানুষকে সচেতন করার লক্ষে লিফলেট বিতরণ করে।পরে র‌্যালী শেষে মহিলা কলেজ মাঠে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা হয়।এসময় সুভেচ্ছা বক্তব্যে নীলফামারী পরিবর্তন চাই এর সভাপতি নাসির উদ্দিন বলেন- ” দেশবাসির মধ্যে যদি কেবল যেখানে সেখানে ময়লা ফেলার প্রবণতা কমিয়ে আনা যায়  তাহলে অল্পদিনেই বাংলাদেশে পৃথিবীর  সবচেয়ে সুন্দর, স্বাস্থ্যকর ও সভ্য দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম হয়ে যেতে পারে”।তিনি এ দিবসটি সফল করার জন্য সকলকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু ছালেহ মো: মুসা
ইতিবাচক-নেতিবাচক দুই ধরনের পরিবর্তনের কথা উল্লেখ করে বলেন “আমাদের  ইতিবাচক পরিবর্তন টাই কাম্য, যা ‘পরিবর্তন চাই’ এই পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা দিবসের মাধ্যমে শুরু করেছে।দেশকে এগিয়ে নিতে হলে আমাদের এ ধরনের ইতিবাচক পরিবর্তন দরকার।” তিনি এ ধরনের উদ্যোগ কে স্বাগত জানান। এ ধরনের অভিযানে উপস্থিত থাকতে পেরে তিনি নিজেকে ধন্য মনে করেন। পরে তিনি অংশগ্রহণকারীদের হাতে সনদপত্র তুলে দেন।

উল্লেখ যে,নীলফামারী জলঢাকাতেও  আজ এ দিবসটি পালন করা হয়।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

shared on wplocker.com