সাম্প্রতিক সংবাদ

স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ অভ্যাসগুলো জেনে নিন

sleep-1-633x319

বিডি নীয়ালা নিউজ(৪জানুয়ারি১৬)- নিজস্ব প্রতিবেদনঃপ্রাত্যহিক জীবনে আমরা এমন কিছু অভ্যাস রপ্ত করি যা শরীরের জন্য ক্ষতিকর। সচেতনতার অভাবে আমরা বুঝতেও পারি না যে এসব অভ্যাস স্বাস্থ্যকে ঝুঁকির মুখে ফেলতে পারে। অথচ একটু সচেতন হলেই এসব অভ্যাসকে বিদায় জানিয়ে সুস্থ থাকা সম্ভব। সম্প্রতি টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে এমন কয়েকটি ক্ষতিকর অভ্যাসের কথা তুলে ধরা হয়েছে।
১। একনাগাড়ে বসে থাকাঃ আপনি যদি চাকরিজীবী হন তাহলে কাজের তাগিদে দীর্ঘক্ষণ অফিসের চেয়ারে বসে থাকতে হতে পারে। প্রতিদিন একনাগাড়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকাটা শরীরের জন্য খুব ক্ষতিকর। সুস্থ থাকতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই এই অভ্যাস বাদ দিতে হবে। একনাগাড়ে বসে না থেকে কাজে বিরতি নিয়ে হাঁটাহাঁটি করতে পারেন। অফিস শেষে বাসায় ছুটে গিয়েই টিভি দেখতে বসে পড়ার অভ্যাস থাকলে সেটাও দূর করতে হবে।
২।ভারী ব্যায়াম শুরুর আগে হালকা ব্যায়াম না করাঃ শরীর ফিট রাখতে প্রতিদিন নিয়ম করে দৌড়াচ্ছেন কিংবা জিমে ঢুকেই ভারী ব্যায়াম শুরু করে দিচ্ছেন? সাবধান। হালকা ব্যায়াম না করে এসব করবেন না। ওয়ার্মআপ বা হালকা ব্যায়ামের মাধ্যমে আগে শরীরের মাংসপেশিকে উজ্জীবিত করে নিন। তারপর ভারী ব্যায়াম শুরু করুন। এতে করে আপনার শরীরের রক্ত চলাচল প্রক্রিয়া স্বাভাবিক থাকবে এবং পরিশ্রম করার শক্তিও বেশি পাবেন। গবেষণায় দেখা গেছে, আগে হালকা ব্যায়াম করে নিলে ভারী ব্যায়াম করার সময় চোট পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই কমে যায়।

৩।মাত্রাতিরিক্ত ঘুমঃ গভীর ঘুম স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। কিন্তু মাত্রাতিরিক্ত ঘুমালে তা আপনার শরীরে বিরূপ প্রভাব ফেলে। প্রতিদিন সাত থেকে ১০ ঘণ্টা ঘুমান উচিত। এর কমবেশি হলে তা শরীরের জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। মোবাইল ফোনে অ্যালার্ম দিলেও প্রতিদিন সকালে ওঠার সময় কি স্নুজ বোতাম চাপতে হচ্ছে আপনাকে? কিংবা অ্যালার্ম বন্ধ করে দিয়ে ঘুমিয়ে পড়ছেন? এমন অভ্যাস থাকলে তা বাদ দিন। প্রতিরাতে নিয়ম করে একই সময়ে ঘুমাতে যান এবং সকালে একই সময়ে জেগে ওঠার অভ্যাস রপ্ত করুন।
৪।পর্যাপ্ত পানি পান না করাঃ প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করার চেয়ে ভালো অভ্যাস আর হতে পারে না। কিন্তু যদি পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান না করেন, তাহলে শরীরকে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান থেকে বঞ্চিত করছেন আপনি। পর্যাপ্ত পানি পান না করার অভ্যাস থাকলে এখনই তাকে বিদায় জানান। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, প্রতিদিন একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের কমপক্ষে আট গ্লাস পানি পান করা উচিত।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

shared on wplocker.com