সাম্প্রতিক সংবাদ

নাটক জমেছে জাতীয় পার্টিতে

ersad

বিডি নীয়ালা নিউজ(২০জানুয়ারি১৬)- নিজস্ব প্রতিবেদনঃ হঠাৎ করেই নাটক জমে উঠেছে জাতীয় পার্টিতে। জাতীয় পার্টিকে ঘিরে গত ৭২ ঘন্টায় অনেক নাটক মনঞ্চস্ত হয়েছে ঢাকা রংপুরে। জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ কতটা গণতন্ত্রী, তা এখন হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন দলটির সদ্য পদচ্যুত মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু। দলের চেয়ারম্যান গতকাল মঙ্গলবার তাঁর বিরুদ্ধে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ এনে মহাসচিব পদ থেকে পত্রপাঠ বিদায় করে দিয়েছেন। এত দিন সভা-সেমিনার, টক শোতে জিয়াউদ্দিন তাঁর নেতা কতটা ‘গণতন্ত্রী’ তা প্রমাণের আপ্রাণ চেষ্টা করে গেছেন।
এর আগে এরশাদ সাহেব মাহবুবুর রহমান, খালেদুর রহমান টিটো, আবদুল মতিন, আনোয়ার হোসেন মঞ্জু ও নাজিউর রহমানকেও একই কায়দায় বিদায় দিয়েছেন। এমনকি ২০১৪ সালের এপ্রিলে তিনি যখন রুহুল আমিন হাওলাদারকে সরিয়ে জিয়াউদ্দিন বাবলুকে মহাসচিব করেন, তখনো একই স্বেচ্ছাচারিতার আশ্রয় নিয়েছিলেন। সেবার এরশাদ রুহুল আমিনের বিরুদ্ধে ব্যর্থতার অভিযোগ এনেছিলেন, এবার জিয়াউদ্দিনের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ আনলেন। সেই সঙ্গে শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়েও তাঁকে অভিযুক্ত করলেন। কিন্তু তিনি যে দলের কারও সঙ্গে আলাপ না করে একা এত বড় একটি সিদ্ধান্ত নিলেন, তাতে কি শৃঙ্খলা ভঙ্গ হয়নি? কেবল এরশাদ নন, বাংলাদেশে সব দলের প্রধানের জন্য সাত খুন মাফ। তিনি যা করবেন, সেটাই আইন, তিনি যা বলবেন, সেটাই গঠনতন্ত্র। জিয়াউদ্দিনকে সরানোর সময় এরশাদও গঠনতন্ত্রের দোহাই দিয়েছেন।

শীর্ষপদে পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ নাকি বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদের বলয়ের নেতারা থাকবেন, তা নিয়েই একের পর এক নাটকীয়তা শুরু হয়েছে। প্রথমে এরশাদ তার ছোট ভাইকে করেন পার্টির উত্তরসূরি, সেটা প্রত্যাখ্যান করে তার স্ত্রী নিজেকেই ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ঘোষণা করেন। স্ত্রীর ঘোষণাকে অবৈধ আখ্যা দেওয়া এরশাদ পার্টির মহাসচিব পদেও পরিবর্তন আনেন। সেই সিদ্ধান্ত আবার প্রত্যাখ্যান করেন রওশন। জাতীয় পার্টির সংসদীয় দলের বৈঠক থেকে বেরিয়ে প্রত্যাখ্যানের কথা জানানো নেতা আবার এক ঘণ্টার ব্যবধানে এরশাদের উপস্থিতিতে প্রত্যাখ্যানের কথা অস্বীকার করেন। পার্টি-সংশ্লিষ্টরা বলছেন, কোথায় কোন ধরনের নাটক হচ্ছে তার কিছুই বোঝা যাচ্ছে না। কোনো সিদ্ধান্তকেই এখনো চূড়ান্ত বলা যায় না। দল ভাগ হচ্ছে কিনা আগামী দুই দিনের মধ্যে তা স্পষ্ট হবে। তবে এরশাদ ঘোষণা করেছেন, মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি তার সিদ্ধান্তে অটল থাকবেন। জানা যায়, রবিবার রংপুরে এক কর্মী সম্মেলনে ছোট ভাই জি এম কাদেরকে পার্টির কো-চেয়ারম্যান এবং রুহুল আমিন হাওলাদারকে দলের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্যসচিব ঘোষণা করেন সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। এর পর     থেকেই চলছে নানান নাটকীয়তা। চেয়ারম্যানের ঘোষণার পরদিনই সোমবার রওশন এরশাদের গুলশানের বাসায় রওশনপন্থি জিয়াউদ্দিন বাবলু, ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদসহ দলের একটি অংশ যৌথ সভা ডেকে রওশন এরশাদকে পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ঘোষণা করেন। সেদিন পর্যন্ত মহাসচিব থাকা জিয়াউদ্দিন বাবলু এরশাদের বিরুদ্ধে গঠনতন্ত্র না মানার অভিযোগ তোলেন। এমন পরিস্থিতিতেই গতকাল রংপুর থেকে ঢাকা ফিরে আসেন এরশাদ। দুপুরে এয়ারপোর্ট থেকেই সরাসরি চলে যান জাতীয় পার্টির বনানীর চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে। জি এম কাদের ও রুহুল আমিন হাওলাদারকে দুই পাশে রেখে করেন জরুরি সংবাদ সম্মেলন। জিয়াউদ্দিন বাবলুকে পার্টির মহাসচিব পদ থেকে অব্যাহতির ঘোষণা দিয়ে এরশাদ মহাসচিব পদে রুহুল আমিন হাওলাদারকে ফিরিয়ে আনার ঘোষণা দেন। এরশাদ বলেন, ‘বাবলু দুই বছরে এক দিনও দলের বর্ধিত ও প্রেসিডিয়ামের সভা ডাকতে পারেনি। বরং জি এম কাদেরকে কো-চেয়ারম্যান ঘোষণার পর বাবলু পার্টিতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেছে। এ জন্য তাকে মহাসচিব পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হলো।’ তিনি বলেন, ‘আমার স্ত্রী রওশন এরশাদের সঙ্গে আমার কোনো বিরোধ নেই। তিনি প্রেসিডিয়ামের কোনো বৈঠকও ডাকেননি। উনাকে দিয়ে তারা (আনিস-বাবলু) স্টেটমেন্ট দেওয়ার চেষ্টা করেছিল। উনি স্টেটমেন্ট দেননি। এই পার্টিকে কেউ বিভক্ত করতে পারবে না।’ পার্টির গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণার এই জরুরি সংবাদ সম্মেলন শেষ করেই এরশাদ জাতীয় সংসদ ভবনে রওশনের ডাকা সংসদীয় দলের বৈঠকে যোগ দিতে যান। সঙ্গে নেন নতুন মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদারকে। নতুন দায়িত্ব পাওয়া জি এম কাদের এমপি না হওয়ায় সংসদীয় দলের অংশ নন। তিনি চলে যান উত্তরার বাসভবনে। অন্যদিকে সংসদ ভবনে এক ঘণ্টার বৈঠকের ২০ মিনিটের মাথায় হাওলাদারকে নিয়ে বের হয়ে যান এরশাদ। বৈঠকে ছিলেন পার্টির সব এমপিই। পরে গণমাধ্যমকে বৈঠকের সিদ্ধান্ত জানান বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ তাজুল ইসলাম চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘গত কয়েক দিনে এরশাদের সব সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করেছে সংসদীয় দল। এ সিদ্ধান্তগুলোর সবই স্থগিত করা হয়েছে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে পার্টির প্রেসিডিয়াম এবং যৌথ সভায় এগুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

shared on wplocker.com