সাম্প্রতিক সংবাদ

আ’ লীগের সঙ্গেই নির্বাচনী জোট করতে চাই ৮ ইসলামপন্থি

ডেস্ক রিপোর্ট : বাংলাদেশে আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে আটটি ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দল নতুন একটি জোট করার বাপারে একমত হয়েছে ৷ আট আগস্ট তারা এই জোটের নাম ও চেয়ারম্যানের নাম ঘোষণা করবে বলে শুক্রবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ৷

নতুন জোটের সমন্বয়কারী গণতান্ত্রিক ইসলামিক মুভমেন্টের চেয়ারম্যান মো. নূরুল ইসলাম খান শুক্রবারের বৈঠকের পর বলেন, ‘‘জোটের নাম এখনো চূড়ান্ত হয়নি৷ তবে আমরা জোট গঠনের ব্যাপারে বৈঠকে একমত হয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছি ৷ আট আগস্ট আনুষ্ঠানিকভাবে জোটের নাম এবং চেয়ারম্যানের নাম ঘোষণা করা হবে ৷”

তিনি বলেন, ‘‘জোটের দু’টি নাম প্রস্তাব করা হয়েছে – বাংলাদেশ ইসলামিক ডেমোক্রেটিক এলায়েন্স অথবা ন্যাশনাল ডেমেক্রেটিক এলায়েন্স৷ এর যেকোন একটি নাম চূড়ান্ত হবে৷ বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোট-এর চেয়ারম্যান, মিছবাহুর রহমান চৌধুরী এই জোটের চেয়ারম্যান হতে পারেন ৷”

যে আটটি দল এই জোটে থাকতে সম্মতি দিয়েছে সেই দলগুলো হল- বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন, বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোট, গণতান্ত্রিক ইসলামিক মুভমেন্ট, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এনডিপি), বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টি, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ ভাসানী), জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক দল (জাগদল) ও জমিয়তে হিজবুল্লাহ বাংলাদেশ৷ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও ইসলামি মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠায় এই জোট কাজ করবে এবং আগামী নির্বাচনে অংশ নেবে বলে জানা গেছে ৷

নূরুল ইসলাম খান বলেন, ‘‘আমরা আমাদের জোট থেকে ৩০০ আসনেই প্রার্থী দেয়ার জন্য আগামী এক বছর কাজ করবো ৷ তবে নির্বাচনের আগে বড় কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গেও নির্বাচনী জোট করতে পারি৷”
সেক্ষেত্রে কোন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জোট করার সম্ভাবনা আছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘‘বর্তমান সরকারে থাকা আওয়ামী লীগের সঙ্গেই আমরা নির্বাচনী জোট করতে চাই৷ কারণ আমি এবং মেসবাহুর রহমান চৌধুরী দু’জনই আওয়ামী ঘরানার৷ ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার আগে আমাদের সঙ্গে শেখ হাসিনার একটা যোগাযোগ হয়েছিল৷ ইসলামপন্থিদের এক করে জোটবদ্ধ করার কথা হয়েছিল ৷”

কেউ কেউ তো বলে থাকেন আওয়ামী লীগ ‘ইসলাম বিরোধী’৷ একথার জবাবে তিনি বলেন, ‘‘ইসলামের পক্ষে কে বিএনপি? আমরাতো মনে করি বিএনপি’র চেয়ে আওয়ামী লীগের আমলে ইসলামের জন্য এবং ইসলামের পক্ষে বেশি কাজ হয়েছে ৷”

আর নতুন এই জোটের শরিক বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমির মাওলানা জাফরুল্লাহ খান বলেন, ‘‘উন্নয়নের জন্য আওয়ামী লীগ ভালো৷ মুক্তিযুদ্ধের পক্ষেতো আছেই৷ আর ভবিষ্যতে ইসলামের বিরুদ্ধে কিছু করবে বলে মনে হয়না৷ কারণ কিছুটা হোঁচট এরইমধ্যে খেয়েছে ইসলামের বিরুদ্ধে গিয়ে৷”

তিনি আরো বলেন, ‘‘এখনো আওয়ামী লীগের সঙ্গে নির্বাচনী জোট করব এমন কোনো চূড়ান্ত আলোচনা হয়নি৷ জোট হলে আমরা ১০০ আসন চাইব৷ কারণ আমরা মনে করি নির্বাচন সুষ্ঠু হলে আমাদের নতুন এই জোটের ভোট হবে শতকরা ২৫ ভাগ ৷”

প/ড/ন

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
shared on wplocker.com