সাম্প্রতিক সংবাদ

শিক্ষকদের দাবি পূরণের চেষ্টা চালাচ্ছে সরকার। শিক্ষামন্ত্রী

Nahid11

বিডি নীয়ালা নিউজ(৩জানুয়ারি১৬)- অনলাইন প্রতিবেদন: বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষদের বেতন-ভাতাসহ বিভিন্ন দাবি নিয়ে সৃষ্ট সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চলছে। বিষয়টি দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আমরা আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছি। রাজধানীর মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে আয়োজিত এক অনূষ্ঠান শেষে আজ রবিবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে  এ কথ জানালেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

শিক্ষক আন্দোলনে সরকারের অবস্থান সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি জানান,আমি নিজেকে শিক্ষা পরিবারের একজন মনে করি। শিক্ষকদের দাবিগুলো আদায়ের ব্যাপারে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কয়েকবার মিটিং করেছি। দ্রুতই শিক্ষকদের দাবির ব্যাপারে একটা নিষ্পত্তি হবে। মন্ত্রী জানান, দেশের মোট জনসংখ্যার এক তৃতীয়াংশই শিক্ষার্থী। বর্তমানে ১২৯টি পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। এসব বিশ্ববিদ্যালয়ে ২১ লাখের মতো শিক্ষার্থী পড়াশোনা করে। নাহিদ বলেন, পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাকে একই মানে নিয়ে আসার লক্ষ্যে অ্যাক্রিডিটেশন কাউন্সিল গঠন করা হয়। এর নীতিমালার বিষয়ে আমরা অনেক দূর এগিয়েছি। আজ পূর্ণাঙ্গ খসড়ার ওপর আলোচনা হলো। আশা করছি, দ্রুতই এ নীতিমালার বাস্তবায়ন দেখতে পাব। মন্ত্রী বলেন, মানসম্মত শিক্ষা ও শিক্ষায় বৈষম্য দূরীকরণের দায়িত্ব শিক্ষকদের নিতে হবে। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষায় ৫ লাখের বেশি শিক্ষক আছেন। শিক্ষার সামগ্রিক উন্নয়নে শিক্ষকদের আরো বেশি দায়িত্বশীল হতে হবে। সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মান নিশ্চিতের লক্ষে প্রণিতব্য অ্যাক্রিডিটেশন কাউন্সিল আইন-২০১৫ এর ওপর মতামত নেওয়ার জন্য ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে বিশ্ববিদ্যায়ের ভিসি ও ট্রাষ্টি বোর্ডের সভাপতি-সদস্যরা যোগদেন। অধ্যাপকদের একটি অংশকে সিনিয়র সচিবের সমান মর্জাদা প্রদানসহ ৫ দফা দাবিতে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা আন্দোলনে আছেন। আজ রবিবার কালো ব্যাজ ধারণ করে তারা ক্লাস-পরীক্ষা নিয়েছেন। এ কর্মসূচি ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে। দাবি আদায়ের ১১ জানুয়ারি থেকে তারা লাগাতার কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছেন।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

shared on wplocker.com