সাম্প্রতিক সংবাদ

নোবিপ্রবিতে শূন্য আসনে ভর্তি শুরু ৬ মার্চ

NSTU

বিডি নীয়ালা নিউজ(১ই মার্চ১৬)-শিক্ষা প্রতিবেদনঃ  নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির বিভিন্ন বিভাগে ৬ মার্চ থেকে শূন্য আসন পূরণে অপেক্ষমান তালিকা থেকে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার ও ভর্তি কমিটি সচিব (২০১৫-১৬) প্রফেসর মো. মমিনুল হক স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

আসন খালি থাকা বিষয়সমূহ: 

১। গ্রুপ ‘এ’-মেধাতালিকা ৩২১ – ৫২০ পর্যন্ত, মুক্তিযোদ্ধা কোটায় মেধাতালিকা ১৮ -৪৭ পর্যন্ত এবং উপজাতি কোটায় মেধাতালিকা ০৬-১০ পর্যন্ত। সাধারণ কোটায় ফলিত গণিত বিভাগে ৩৩টি আসন শূন্য আছে। মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ফলিত গণিত বিভাগে ০৩টি, এসিসিই বিভাগে ০টি এবং আইসিই বিভাগে ০২টি, মোট ০৬টি আসন শূন্য আছে। উপজাতি কোটায় এসিসিই বিভাগে ০১টি আসন শূন্য আছে।

২। গ্রুপ ‘বি’-মেধাতালিকা ৭৪৭-৯৪৬ পর্যন্ত, মুক্তিযোদ্ধা কোটায় মেধাতালিকা ৩৬-৫৫ পর্যন্ত, সাধারণ কোটায় এফটিএনএস বিভাগে ০৬টি, ইএসডিএম বিভাগে ২২টি এবং এগ্রিকালচার বিভাগে ০৩টি, মোট ৩১টি আসন শূন্য আছে। মুক্তিযোদ্ধা কোটায় এফটিএনএস বিভাগে ০১টি, ইএসডিএম বিভাগে ৩টি এবং এগ্রিকালচার বিভাগে ১টি, মোট ০৫টি আসন শূন্য আছে।

৩। গ্রুপ ‘সি’-মেধাতালিকা ৮৮-১০৭ পর্যন্ত, মুক্তিযোদ্ধা কোটায় মেধাতালিকা ০৬-১০ পর্যন্ত। সাধারণ কোটায় ইংরেজি বিভাগে ০৬টি আসন শূন্য আছে। মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ইংরেজি বিভাগে ০১টি আসন শূন্য আছে।

৪। গ্রুপ ‘ডি’-মেধাতালিকা ৭২-৮১ (বিজ্ঞান), ৬৫-৮০ (বাণিজ্য) এবং ২৮-৩২ (মানবিক) পর্যন্ত। সাধারণ কোটায় ইকনোমিক্স বিভাগে (বিজ্ঞান) ০২টি, (বাণিজ্য) ০৩টি ও (মানবিক) ০১টি, মোট ০৬টি আসন শূন্য আছে।

ভর্তির স্থান: 

হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস অডিটোরিয়াম, নোবিপ্রবি। সময় সকাল সাড়ে ৯টা। মুক্তিযোদ্ধা কোটায় শিক্ষার্থী ভর্তির ক্ষেত্রে সরকারি পরিপত্র অনুযায়ী (মুক্তিযোদ্ধার সন্তান অগ্রাধিকার পাবে) ভর্তি করা হবে।

ভর্তির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

১. এসএসসি ও এইচএসসি’র মূল মার্কশিট  এবং প্রত্যেকটির একটি করে সত্যায়িত কপি অবশ্যই সঙ্গে আনতে হবে, ২ টেলিটক বাংলাদেশ লিমিডেট থেকে ডাউনলোডকৃত প্রবেশপত্রের কপি, ৩. পাঁচ কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি, ৪. নাগরিকত্ব সার্টিফিকেট/ জন্মনিবন্ধন/ পাসপোর্টের সত্যায়িত কপি, ৫. মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ভর্তিচ্ছু প্রার্থীদের পিতা-মাতার অনুকুলে সরকারের ইস্যুকৃত মুক্তিযোদ্ধা সার্টিফিকেট এবং প্রয়োজনে দাদা-দাদি, নানা-নানির, সম্পর্কের সার্টিফিকেটের মূল কপি এবং সত্যায়িত কপি, ৬. উপজাতি প্রার্থীদের ক্ষেত্রে উপজাতিভিত্তিক প্রত্যয়নপত্রের মূল কপি ও সত্যায়িত কপি এবং ৭. প্রথম টার্মের ক্রেডিট আওয়ার ফিসহ অন্যান্য ফি-চার্জ বাবদ সকল গ্রুপের জন্য আনুমানিক ২২,০০০/- (বাইশ হাজার) টাকা ভর্তি ফি-চার্জ সঙ্গে আনতে হবে।

উপরোল্লিখিত কাজগপত্র ব্যতীত কোনো শিক্ষার্থীকে ভর্তির অনুমতি দেয়া হবে না।

 

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
shared on wplocker.com