সাম্প্রতিক সংবাদ

২০১৯ সালের মধ্যে সবার জন্য আবাসন পরিকল্পনাঃ প্রধানমন্ত্রী

Shekh_Hasina

বিডি নীয়ালা নিউজ(১৫ই মার্চ১৬)-অনলাইন প্রতিবেদনঃ  আগামী তিন বছরে দেশে অবশিষ্ট ২ লাখ ৮০ হাজার গৃহহীন পরিবারের আবাসন নিশ্চিত করার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, আমাদের লক্ষ্য ধাপে ধাপে দারিদ্র্য বিমোচন করা। এ জন্য দরিদ্র মানুষগুলোকে ক্ষুদ্রঋণের গণ্ডিতে ফেলে রেখে দারিদ্র্যকে লালন-পালন না করে আয় বর্ধক কর্মকাণ্ড, সমবায় ও ক্ষুদ্র সঞ্চয় কর্মসূচি গ্রহণ করেছি। আমরা চাই, মানুষ ক্ষুদ্র সঞ্চয়ের মাধ্যমে দারিদ্র্য থেকে উঠে আসুক।
আজ মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আশ্রয়ন প্রকল্প-২, একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প, গুচ্ছগ্রাম প্রকল্প, ঘরে ফেরা কর্মসূচি, গৃহায়ন তববিল প্রকল্পের বাস্তবায়ন, অগ্রগতি ও ভবিষ্যত পরিকল্পনা বিষয়ক পর্যালোচনা বৈঠকে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ গৃহহীন মানুষের আবাসনে সরকারের সফলতা তুলে ধরার পাশাপাশি দেশে এখনো ২ লাখ ৮০ হাজার পরিবার গৃহহীন রয়েছে বলে জানালে শেখ হাসিনা তার সরকারের পরিকল্পনার কথা জানান।

গৃহহীনদের আবাসন নিশ্চিত করতে সরকার বিভিন্ন গৃহায়ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০১৯ সালের মধ্যে এই সরকারের মেয়াদে দেশে কোনো গৃহহীন মানুষ থাকবে না। এটা নিশ্চিত করতে সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে।

গৃহহারা প্রতিটি মানুষের জন্য আবাসন নিশ্চিত করতে সমন্বিত পদ্ধতিতে কাজ করার পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অধীন প্রকল্পগুলোও দ্রুত বাস্তবায়নের নির্দেশ দেন তিনি।

অসহায় গৃহহীন মানুষের দূর্ভোগ হ্রাসে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার প্রতিটি গৃহহীন পরিবারের জন্য আবাসন নিশ্চিত করতে চায়। অসহায় মানুষ ফুটপাত, রেলওয়ের পাশে কিংবা অন্য কোথাও খোলা আকাশের নিচে অমানবিক পরিবেশে জীবনযাপন করুক, আমরা এটা চাই না।

গৃহহীন মানুষকে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত করতে সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, দরিদ্র মানুষগুলো প্রাকৃতিক দুর্যোগ, নদী ভাঙনসহ বিভিন্ন কারণে গৃহহীন হয়। সরকারের দায়িত্ব তাদের জন্য আশ্রয় নিশ্চিত করা।

যেসব গৃহহীন মানুষকে পুর্নবাসন করা হবে তাদের ঠিকানা ও ছবিসহ পরিপূর্ণ তালিকা তৈরির নির্দেশনা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রকৃত অসহায় মানুষগুলোই যেন সরকারের সুবিধা পায় তা নিশ্চিত করতে হবে।

মানুষ যেন সরকারের সহযোগিতা নির্ভর না হয়ে আত্মনির্ভরশীল হয় সেদিকে দৃষ্টি দিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কাজ না করার প্রবণতা যেন সৃষ্টি না হয়। পথ দেখিয়ে নিয়ে যাওয়া। সহযোগিতা পেয়ে সরকারের ওপর নির্ভরশীল হয়ে কেউ যেন কর্মবিমুখ না হয়। আমরা মানুষকে নিজের পায়ে দাঁড়ানোর একটা সুযোগ তৈরি করে দিতে চাই।

এক্ষেত্রে সমবায়ভিত্তিক কাজ করার পাশাপাশি বিভিন্ন আয়বর্ধক কাজ করার কথাও বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমাম, তৌফিক-ই-এলাহি, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সুরাইয়া বেগম, প্রধানমন্ত্রীর প্রেসসচিব ইহসানুল করিম প্রমুখ।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
shared on wplocker.com