সাম্প্রতিক সংবাদ

রাঙ্গামাটিতে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে

IMG_20160326_174349_234

বিডি নীয়ালা নিউজ(২৬ই মার্চ১৬) নাজমুল হক হৃদয়( রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি): ২৬ শে মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্দ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার বিকেলে রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগ এর কার্য্যালয়ে উক্ত অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানটি উপলক্ষ্যো রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগ বিনামূল্যে ব্লাড গ্রুপিং এর আয়োজন করেছে।

রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগ এর তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল মাওলার সঞ্চানলায় ও রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি রুহুল আমিন এর সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য মোঃ মুছা মাতব্বর, রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগের  যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আব্দুল মতিন,  রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক মমতাজুল হক,  রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশে বিষয়ক সম্পাদক অভয় প্রকাশ চাকমা ,রাঙ্গামাটি পৌর আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ নাছির উদ্দীন নাছির, রাঙ্গামাটি জেলা মহিলা আওয়ামীলীগ এর সাধারন সম্পাদক ও রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য জেবুন্নেসা রহিম,রাঙ্গামাটি সদর আওয়ামীলীগের সভাপতি হৃদয় বিকাশ চাকমা,রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জমির উদ্দীন সহ প্রমুখ ব্যাক্তিবর্গ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা বলেন বাংলাদেশের ইতিহাসে বঙ্গবন্ধু এক মৃত্যুঞ্জী অধ্যায়। আজ আমাদের দেশ স্বাধীন আমরা স্বাধীন দেশে নিজের মত করি চলি কিন্ত এই স্বাধীনতার পিছনে যার অকৃত্রিম অবদান আছে যার জন্ম না হলে এই দেশ হতো নাহ তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। জাতি তার এই কৃত্বিতের কথা কখনোই ভূলবেনা।স্বাধীনতার যুদ্ধের এদেশের ইতিহাস তৎকালীন উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তি বিকৃত করে যার ফল শ্রুতিতে সেই সময় সঠিক ইতিহাস মানুষের সম্পুর্নভাবে জানা ছিলো নাহ।কিন্তু আওয়ামীলীগ সরকার ২০০৯ সালে ক্ষমতায় এসে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস বই পুস্তকে নির্ভূল ভাবে লিপিবদ্ধ করেছে। দেশকে রাজাকার মুক্ত করেছে।যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের আওতায় এনে তাদেরকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। অনেক বিচার কার্যকর হয়েছে আরও কাজ চলমান রয়েছে। এই বিচার করে সরকার দেশকে কলঙ্ক মুক্ত করতে পেরেছে।বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিলো ক্ষুদা, দারিদ্র ও সাম্প্রদায়িক মুক্ত দেশ বিনির্মাণ করার।বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনা তা বাস্তবায়নে সক্ষম হয়েছে।।যা সম্ভব হয়েছে একমাত্র মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের দল আওয়ামীলীগের কারনে। তিনি আরও বলেন এখনো দেশের মধ্যে উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তি ও স্বাধীনতার বিরোধী অনেকে বিরাজমান রয়েছে। য কোন সময় দেশের মধ্যে অরাজকতা সৃষ্টি করতে পারে তাই আমাদেরকে এই ব্যাপারে সোচ্চার হতে হবে।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
shared on wplocker.com