সাম্প্রতিক সংবাদ

প্রবীণরা যাতে মর্যাদার সাথে বাঁচতে পারে সে লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন : রাষ্ট্রপতি

2016-09-15_10_476654

 ডেস্ক রিপোর্টঃ রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেছেন, প্রবীণরা যাতে সুখ-শান্তি এবং মর্যাদার সাথে বাঁচতে পারে সে লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া অতীব প্রয়োজন।
আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস উপলক্ষে প্রদত্ত এক বাণীতে তিনি এ কথা বলেন।
বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও আগামীকাল ১ অক্টোবর ‘আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস’ যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হচ্ছে জেনে সন্তোষ প্রকাশ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, চিকিৎসা বিজ্ঞানের অভাবনীয় উন্নতিতে বিশ্বে মানুষের গড় আয়ু বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলশ্রুতিতে পৃথিবীর সব দেশেই প্রবীণদের সংখ্যা ক্রমাগত বেড়ে চলেছে। তিনি বলেন, প্রবীণ জনগোষ্ঠী সমাজে সম্মান ও শ্রদ্ধার পাত্র। তাঁদের মেধা, মনন ও কর্মময় জীবনের পথ বেয়েই সভ্যতা ও উন্নয়ন এগিয়ে চলেছে। তাই প্রবীণ ব্যক্তিদের যথাযথ মর্যাদা ও সম্মান প্রদানসহ তাঁদের শারীরিক ও মানসিক স্বস্তি নিশ্চিত করা আমাদের সকলের নৈতিক দায়িত্ব ও কর্তব্য।
আবদুল হামিদ বলেন, দেশের বিদ্যমান আর্থিক ও সামাজিক অবস্থার প্রেক্ষাপটে দেখা যায় অনেক প্রবীণ ব্যক্তি অবনতিশীল স্বাস্থ্য, আর্থিক দৈন্য এবং সামাজিক নিরাপত্তাহীনতায় ভুগে থাকেন। এতে প্রবীণদের মৌলিক ও মানবিক অধিকার ক্ষুণœœ হচ্ছে। প্রবীণরা যাতে সুখ-শান্তি এবং মর্যাদার সাথে বাঁচতে পারে সে লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া প্রয়োজন। এ ক্ষেত্রে পরিবারের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে তিনি মনে করেন।
রাষ্ট্রপতি বলেন, সরকার প্রবীণদের কল্যাণে বয়স্কভাতা, চিকিৎসাসেবা প্রদানসহ সামাজিক সুরক্ষা কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন বেসরকারি এবং কল্যাণমূলক সংগঠন প্রবীণদের কল্যাণে গঠনমূলক ভূমিকা পালন করে যাবে বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস।
তিনি বলেন, বার্ধক্যের বাস্তবতাকে অস্বীকার করার উপায় নেই। কারণ যে কোন ব্যক্তিকে স্বাভাবিক নিয়মেই একদিন প্রবীণত্বকে বরণ করতে হয়। আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবসের এ বছরের প্রতিপাদ্য ‘বয়স বৈষম্য দূর করুন’ যথার্থ হয়েছে বলে রাষ্ট্রপতি মনে করেন। কেননা এর মাধ্যমে প্রবীণদেরকে দূরে সরিয়ে না দিয়ে কাছে টানার ব্যাপারে উৎসাহিত করা হয়েছে।
আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবসে তিনি বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল প্রবীণের সুস্বাস্থ্য, স্বস্তিময় ভবিষ্যৎ এবং তাঁদের কল্যাণ কামনা করেন।
রাষ্ট্রপতি আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস-২০১৬ উপলক্ষে গৃহীত কর্মসূচির সফলতা কামনা করেন।

 

বি/এস/এস/এন

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
shared on wplocker.com