সাম্প্রতিক সংবাদ

পশ্চিমবঙ্গে নেতানেত্রীদের ঘুষ নেওয়ার ভিডিও নিয়ে তোলপাড়

kongres

বিডি নীয়ালা নিউজ(১৫ই মার্চ১৬)-আন্তর্জাতিক প্রতিবেদনঃ  গোপন ক্যামেরা দিয়ে তোলা পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেসের অন্তত ১২ জন শীর্ষ নেতা-নেত্রী ও একজন সিনিয়র পুলিশ অফিসারের ঘুষ নেওয়ার কথিত ভিডিও প্রকাশ পাওয়ার পরে তা নিয়ে ভারতের রাজনীতিতে তোলপাড় শুরু হয়েছে।

বিধানসভা নির্বাচনের আগে এই ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর পদত্যাগ, কেন্দ্রীয় এজেন্সি দিয়ে তদন্ত অথবা পার্লামেন্টের তদন্তের দাবী তুলেছে বাম, কংগ্রেস আর বি জে পি।

এ নিয়ে আজ দেশের পার্লামেন্টেও তুমুল বিবাদ হয়েছে।

নারদনিউজ নামের একটি সংবাদ পোর্টাল দাবী করেছে যে তারা প্রায় দু’বছর ধরে তৃণমূল কংগ্রেসের কয়েকজন শীর্ষ নেতা নেত্রীর ঘুষ নেওয়ার ছবি তুলেছে।

এই স্টিং অপারেশনে যেসব নেতা নেত্রীদের ছবি দেখা গেছে, তারা কেউ তৃণমূল কংগ্রেসের অন্যতম শীর্ষ নেতা, কেউ প্রাক্তন কেন্দ্রীয় বা রাজ্যের মন্ত্রী, কেউ সংসদ সদস্য অথবা কেউ বিধায়ক।

একজন সিনিয়র পুলিশ অফিসারকেও ঘুষ নিতে দেখা গেছে।

ওই সংবাদ পোর্টালের প্রতিনিধি নেতা-নেত্রীদের কাছে সুবিধা আদায় করে নেওয়ার বদলে ঘুষ দিচ্ছেন – এমন ছবিই দেখা গেছে।

পোর্টালটি দাবী করেছে, তাদের কাছে ৫২ ঘণ্টার ভিডিও ফুটেজ রেকর্ড করা আছে, কিন্তু তারা প্রকাশ করেছে মাত্রই আধঘণ্টার কিছু বেশি ফুটেজ।

তৃণমূল কংগ্রেস দল অবশ্য বলছে, বিধানসভা নির্বাচনের ঠিক আগে রাজনৈতিক চক্রান্ত করতে এই ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। গোটা ভিডিওটিকে তারা ‘ডক্টর্ড’ বা ব্যাপক কাঁটাছেড়া করা ভিডিও বলে মন্তব্য করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে।

এই স্টিং অপারেশনের ভিডিও প্রকাশিত হওয়ার পরেই প্রতিবাদে নেমেছে বামফ্রন্ট, কংগ্রেস আর বি জে পি।

আজ পার্লামেন্টে সি পি আই এমের সংসদ সদস্য মুহম্মদ সেলিম বলেছেন, “তৃণমূল কংগ্রেসের যেসব সংসদ সদস্যকে ঘুষ নিতে দেখা গেছে, তাদের সঙ্গেই এই সংসদে বসে থাকতে লজ্জা হচ্ছে।“

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ভেঙ্কাইয়া নাইডু ওই প্রসঙ্গে সংসদে জানিয়েছেন, “কেন্দ্র সরকার চায় এই ঘটনার তদন্ত হোক। সেটা কোনো কেন্দ্রীয় তদন্ত এজেন্সিকে দিয়েও করানো যেতে পারে, অথবা সংসদের স্পিকার এথিকস কমিটির মাধ্যমেও তদন্ত করাতে পারেন।”

কলকাতায় বি জে পি এই ঘটনার পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর পদত্যাগ আর সি বি আই তদন্তের দাবীতে পথ অবরোধ করে।

পুলিশকে সেই অবরোধ তুলতে হাল্কা লাঠি চার্জও করতে হয়েছে।

প্রায় দেড় দশক আগে এরকমই একটি স্টিং অপারেশনের মাধ্যমে গোপন ক্যামেরায় বি জে পি-র তৎকালীন সভাপতি বঙ্গারু লক্ষ্মণকে ঘুষ নিতে দেখা গিয়েছিল।

 

 

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
shared on wplocker.com