সাম্প্রতিক সংবাদ

গ্লোবাল ভিডিও কম্পিটিশনে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত তানজিনা বিজয়ী

2016-09-18_6_274328

ডেস্ক রিপোর্টঃ গ্লোবাল ভিডিও কম্পিটিশনে ৬০ টিরও বেশি দেশ থেকে অংশগ্রহণকারী প্রায় ৪০০ প্রতিযোগীকে পরাজিত করে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত এক কিশোরী বিজয়ী হয়েছে।
বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত মেয়ে তানজিনা নওশিনের সঙ্গে যৌথভাবে ‘এডুকেশন ইয়ুথ ভিডিও চ্যালেঞ্জ’ পুরষ্কার বিজয়ী হয়েছে কানাডিয়ান মেয়ে রুথ অরুনাচলম।
এই প্রতিযোগিতার আয়োজক যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক ইন্টারন্যাশনাল কমিশন অন ফাইন্যান্সিং গ্লোবাল এডুকেশন অপরচুনিটি যা এডুকেশন কমিশন হিসেবে পরিচিত।
রোববার জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭১তম অধিবেশনের ফাঁকে এই পুরষ্কার বিতরণের আয়োজন করার কথা। বিশ্ব নেতৃবৃেন্দর উপস্থিতিতে জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুন আনুষ্ঠানিকভাবে বিজয়ী তানজিনা ও রুথ’র নাম ঘোষণা করবেন।
গ্লোবাল এডুকেশন বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ দূত ও এডুকেশন কমিশনের চেয়ারম্যান গর্ডন ব্রাউন বিজয়ীদের হাতে এই পুরস্কার তুলে দেবেন।
আয়োজকদের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে- তরুণ প্রজন্ম ভবিষ্যত শিক্ষা ব্যাবস্থা নিয়ে কি ভাবছে, সে বিষয়ে তাদের মতামত ভিত্তিক ৩০ সেকেন্ডের ভিডিওর মাধ্যমে এই প্রতিযোগিতা হয়।
কানাডায় জন্মগ্রহণ করা তানজিনা (১৯) এখন ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ছে। তার বাবা সিলেট থেকে কানাডায় অভিবাসী হয়ে টরেন্টোতে ব্যবসা করছেন।
তানজিনার বাবা নুরুল মোস্তফা রায়হান বাসসকে ফোনে জানান, ‘আমার মেয়ের জন্ম ও বড় হওয়া কানাডায় হলেও সে উত্তরাধিকার সুত্রে বাংলাদেশের সংস্কৃতি পেয়েছে।’
তিনি বিশ্বাস করেন তার মেয়ের কৃতিত্ব কানাডা ও বাংলাদেশের জন্য সুনাম বয়ে আনবে।
প্রতিযোগিতায় নেপালী মেয়ে প্রীতি শাক্য (২৩) দ্বিতীয় ও ব্রাজিলিয়ান মেয়ে গুস্তাভো সান্তানা (৩০) তৃতীয় পুরস্কার জিতেছে।
প্রতিযোগিতায় ১৩ থেকে ৩০ বছরের বয়সী মেয়েরা অংশগ্রহণ করেছে। এতে প্রতিযোগিদের দু’টি প্রশ্ন করা হয়েছে, যার উত্তর তাদের ত্রিশ সেকেন্ডের মধ্যে দিতে হয়েছে। প্রশ্ন দু’টি ছিল : (১) আপনার ভবিষ্যতের প্রস্তুতির জন্য কোন শিক্ষাকে সেরা মনে করেন? (২) আপনি ভবিষ্যতে কি ধরণের বিদ্যালয় দেখতে চান?

 

 

B/S/S

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
shared on wplocker.com